logo
বুধবার , ২০ জুলাই ২০২২ | ৩১শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ক্যারিয়ার ভাবনা
  5. খেলা
  6. জাতীয়
  7. টেক নিউজ
  8. দেশের খবর
  9. প্রবাস
  10. ফিচার
  11. বিনোদন
  12. রাজনীতি
  13. লাইফস্টাইল
  14. সম্পাদকীয়
  15. সাফল্য

বরখাস্ত কর্নেল শহীদ, বহুমূখী অপরাধীর এক উৎকৃষ্ট উদাহরণ। পর্ব – ৩

প্রতিবেদক
admin
জুলাই ২০, ২০২২ ১২:০৪ পূর্বাহ্ণ

এর আগের প্রতিবেদনে আমরা দেখেছি যে সেনাবাহিনীতে থাকা কালিন অবঃ কর্ণেল শহীদ উদ্দিনের নানান অপকর্মের তথ্য। আমরা সবাই জানি অধিক লাভের টোপ ফেলে দেশের প্রায় ৩৫ লাখ মানুষের কষ্টের টাকা হাতিয়ে নেওয়া এক প্রতারক চক্রের নাম ডেসটিনি গ্রুপ । বাংলাদেশে বসবাস করে অথচ ডেসটিনি গ্রুপের নাম জানে না এমন মানুষ হয়ত খুঁজে পাওয়া দুষ্কর । কখনও এমএলএম ব্যবসা , কখনও বৃক্ষরোপণ প্রকল্প আবার কখনও সমবায়ভিত্তিক ব্যবসার নামে ৪৬ শতাংশ মুনাফা দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে গ্রাহকের কাছ থেকে হাতিয়ে নেওয়া হয়েছে হাজার হাজার কোটি কোটি টাকা । সম্প্রতি অর্থ আত্মসাৎ ও পাচারের এক মামলায় ডেসটিনি গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রফিকুল আমিনসহ ৪৬ আসামির বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে আসামিদের ২ হাজার ৩০০ কোটি টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এই রফিকুল আমিনের অত্যন্ত কাছের লোক ছিলেন সেনাবাহিনীর সাবেক কর্মকর্তারা ,যারা ডেসটিনি গ্রুপের প্রতারণার সাথে জড়িত ছিলেন । তার মধ্যে সাবেক সেনাপ্রধান হারুন-অর-রশিদকে সবার চেনা কিন্তু এর আড়ালেও আর একজন প্রতারক রয়েছেন যিনি রফিকের খুব কাছের মানুষ ছিলেন তিনি আর কেউ নন বিশ্ব বাটপার ও প্রতারক অবঃ কর্ণেল শহীদ উদ্দিন খান ।রফিকের মত প্রতারকের খুব কাছের মানুষ ছিলেন শহীদ। পরবর্তীতে রফিকুল আমিন এর সাথে জড়িত থেকে গ্রাহকদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেয়া কোটি কোটি টাকা লন্ডনে বিনিয়োগ করেন আর এখন সেই টাকায় বিলাসবহুল জীবন যাপন করছেন আর দেশ ও রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছেন । এছাড়া মৃত কাজী মশিউর রহমানের আলোচিত ডেসটিনি বন্দিশাহী কোলষ্টোরেজ লিমিটেডের বিরুদ্ধে টাকা ভাগ বাটোয়া সংক্রান্ত কোর্টের একটি রায় আছে।এই টাকার অর্ধেক কর্নেল শহীদের একমাত্র শ্যালক মুশফিকুর রহমানকে প্রদান করার বিষয়ে আদালতের নির্দেশনা থাকলেও এই নির্দেশনাকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে পুরোটাই প্রতারণার মাধ্যমে আত্মসাৎ করেন শহীদ উদ্দিন এবং তার স্ত্রী ফারজানা আনজুম । এছাড়া ডেসটিনি ট্রি প্লান্টেশন লিমিটেডের আওতায় প্রবাসী বাঙালিদের প্রলোভন দেখিয়ে বিনিয়োগকারীদের সম্মানী দেওয়ার নামে যুক্তরাষ্ট্র, হংকংসহ অন্যান্য দেশে পাচার করা হয় ৫৬ কোটি ১৯ লাখ ১৯ হাজার ৪০ টাকা এর সাথেও জড়িত ছিলেন শহীদ উদ্দিন । ডেসটিনি গ্রুপের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেওয়া হচ্ছে কিন্তু কর্ণেল শহীদ উদ্দিন কি পার পেয়ে যাবেন ? তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে । শহীদের কুকৃত্তি বলে শেষ করা যাবে না । পরবর্তী প্রতিবেদনে থাকছে তার আরো একটি কুকৃত্তির ইতিহাস

সর্বশেষ - দেশের খবর