যুবদল নেতাদের নির্দেশে ‘নাশকতার ছক’, গোপন বৈঠক

adminadmin
  প্রকাশিত হয়েছেঃ   23 November 2020

ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলা তৈরি করতে নাশকতার ছক তৈরি করেছিলেন স্থানীয় যুবদলের একাধিক নেতা। যুবদলের কয়েকজন শীর্ষ নেতার নির্দেশে তারা এই ছক তৈরি করেছিলেন।

নির্বাচন চলাকালীন সময়ে বিভিন্ন ভোট কেন্দ্রে বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নির্বাচন বানচাল করতে তারা একটি নির্মাণাধীন ভবনে বোমা তৈরি করেন। নাশকতার মাধ্যমে আতঙ্ক তৈরির মধ্য দিয়ে সারা দেশের নেতাকর্মীদের নাশকতায় উদ্বুদ্ধ করাও ছিল তাদের উদ্দেশ্য।

স্থানীয় যুবদলের দুই নেতাসহ ৬ জনকে গ্রেফতারের পর এসব তথ্য জানিয়েছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

ডিবি জানায়, শুক্রবার উত্তরা পশ্চিম থানা এলাকায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে ৩১টি হাতবোমাসহ মামুন পারভেজ ও সুমন শেখকে গ্রেফতার করা হয়। মামুন তুরাগ থানা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক। সুমন শেখ ৫৪ নম্বর ওয়ার্ড যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি। তারা জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছেন, নির্বাচনে নাশকতা করার জন্য যুবদলের কেন্দ্রীয় কয়েক নেতা তাদের কয়েক লাখ টাকা দিয়েছেন। নির্বাচনের দুই সপ্তাহ আগে গোপন বৈঠকের মাধ্যমে নাশকতার পরিকল্পনার কথা জানানো হয়। বোমা তৈরির দায়িত্ব দেয়া হয় সুমন শেখকে। যুবদলের স্থানীয় দুই নেতার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে শনিবার উত্তরা পশ্চিম ও তুরাগ থানার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে চারজনকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার চারজন হলেন মো. সোহরাব হোসেন, মো. তৌহিদুল ইসলাম, মো. সেলিম মিয়া ও মো. উজ্জল মিয়া। এদিকে উত্তরা পশ্চিম থানা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস মজুমদার পলাতক রয়েছেন।

ডিবির উত্তরা বিভাগের এডিসি বদরুজ্জামান জিল্লু যুগান্তরকে বলেন, ৬ জনকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তারা যেসব তথ্য দিয়েছেন এগুলো যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :