হেফাজতকে নিয়ন্ত্রণ নিতে মরিয়া বিএনপি-জামায়াত চক্র!


  প্রকাশিত হয়েছেঃ   15 November 2020

নিউজ ডেস্ক: এককভাবে রাজনীতির মাঠে বিরোধী দলকে কাবু করতে না পারায় বিভিন্ন ধর্মীয় গোষ্ঠী ও রাজনৈতিক দলের পিছু ছুটছে বিএনপি-জামায়াত চক্র। জানা গেছে, সরকারকে চাপে ফেলতে এবার হেফাজতে ইসলামের নিয়ন্ত্রণ নিতে বিএনপি-জামায়াতপন্থি অংশের নেতারা দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন। বৃহৎ এই ধর্মীয় সংগঠনটির নিয়ন্ত্রণ নিতে আল্লামা শফীপন্থীদের বাদ দেয়ার ষড়যন্ত্রও করছে বিএনপি-জামায়াত চক্র।

জানা গেছে, হেফাজতের নতুন নেতৃত্ব নির্বাচনের জন্য ১৮ সদস্যের কাউন্সিল বাস্তবায়ন কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ কমিটিতে থাকা বিএনপি-জামায়াতপন্থিরা নানামুখী তৎপরতা শুরু করেছে। এক কথায় হেফাজতের নিয়ন্ত্রণ নিতে চায় বিএনপি-জামায়াত। হেফাজতের কাউন্সিলকে সামনে রেখে জামায়াত-শিবিরের তৎপরতা চোখে পড়ার মতো। বিএনপি-জামায়াত ঘনিষ্ঠরা হেফাজতকে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ঢাকাকেন্দ্রিক রাজনৈতিক শক্তিতে রূপান্তরের আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছে। নতুন নেতৃত্ব নির্বাচনে যে কাউন্সিল গঠন করা হয়েছে তাতে অনেকেই সরাসরি বিএনপি-জামায়াতের রাজনীতির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট। কেউ কেউ জামায়াত নেতাদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা করে চলেন। নতুন কমিটি গঠনকে সামনে রেখে প্রায় প্রতিদিনই বিএনপি-জামায়াতের নেতা কাউন্সিলের সদস্যদের সাথে মতবিনিময়ের নামে ব্রেনওয়াশ করছেন বলেও গুঞ্জন উঠেছে। নিজেরা রাজপথে সরকারি দলকে প্রতিহত করতে না পেরে হেফাজতের উপর ভর করতে চায় বিএনপি-জামায়াত চক্র। বৃহৎ একটি ইসলামী সংগঠনটিকে কাজে লাগিয়ে দাবি আদায়ের নামে রাজপথে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির ব্লুপ্রিন্ট তৈরি করেছে বিএনপি-জামায়াত জোট।

হেফাজতের স্টিয়ারিং নিজেদের হাতে নিতে পারলে বৃহৎ একটি জনগোষ্ঠীকে সরকারের বিরুদ্ধে কাজে লাগাতে পারবে। আর তাই হেফাজতকে ২০ দলীয় জোটের সাথে অঙ্গীভূত করতে জোর প্রচেষ্টা চলমান রয়েছে। লন্ডন থেকে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানও এই বিষয়ে নিয়মিত বিএনপি নেতাদের শলা-পরামর্শ দিচ্ছেন বলেও জানা গেছে। ভবিষ্যতে হেফাজতের নেতৃত্বকে হাটহাজারী মাদ্রাসার প্রভাবমুক্ত করে ঢাকাকেন্দ্রিক করতে শফীপন্থি কোনো আলেমকে হেফাজতের নতুন কমিটিতে না রাখতেও নানা তৎপরতা শুরু হয়েছে।

দেশের খবর

আপনার মতামত লিখুন :