logo
মঙ্গলবার , ৩ জানুয়ারি ২০২৩ | ২০শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ক্যারিয়ার ভাবনা
  5. খেলা
  6. জাতীয়
  7. টেক নিউজ
  8. দেশের খবর
  9. প্রবাস
  10. ফিচার
  11. বিনোদন
  12. রাজনীতি
  13. লাইফস্টাইল
  14. সম্পাদকীয়
  15. সাফল্য

‘হিজরত’ থেকে ফিরে এসেছে ৯ তরুণ-তরুণী

প্রতিবেদক
admin
জানুয়ারি ৩, ২০২৩ ৯:২৬ পূর্বাহ্ণ

‘যাদের মাধ্যমে জঙ্গিবাদে উদ্বুদ্ধ হয়ে ঘর ছেড়েছিলাম, তাদের চিনতাম না। অচেনা ব্যক্তিদের ভুল ব্যাখ্যার ফাঁদে পড়ে ফেসবুকে একটি গ্রুপে যুক্ত হয়ে উগ্রবাদে উদ্বুদ্ধ হই আমরা। ’—এভাবেই ভুল পথে যাওয়ার গল্প বললেন জঙ্গিবাদের পথ থেকে পরিবারের কাছে ফিরে আসা দুই তরুণ-তরুণী।

রাজধানীর কুর্মিটোলায় র‌্যাবের সদর দপ্তরের কনফারেন্স রুমে ‘নবদিগন্তের পথে’ শীর্ষক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাঁদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
ধর্মের ভুল ব্যাখ্যায় পথভ্রষ্ট হয়ে কথিত হিজরতের নামে গত ২২ ডিসেম্বর ঘর ছাড়েন এই ৯ তরুণ-তরুণী। তাঁদের চট্টগ্রাম থেকে উদ্ধার করা হয়। এই নিয়ে গত কয়েক বছরে জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়া ২৫ জনকে র‌্যাবের মাধ্যমে পরিবারের কাছে ফেরানো হলো।

‘নবদিগন্তের পথে’ অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি র‌্যাবের মহাপরিচালক অতিরিক্ত আইজিপি এম খুরশীদ হোসেন ৯ তরুণ-তরুণীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান এবং বই উপহার দেন। পাশাপাশি প্রত্যেককে নগদ ১০ হাজার টাকা অর্থ সহায়তাও দেন। এ সময় র‌্যাব

মহাপরিচালক বলেন, ‘অনেক তরুণ-তরুণী ধর্মের ভুল ব্যাখ্যায় উদ্বুদ্ধ হয়ে উগ্রবাদের পথে পা বাড়াচ্ছে। সন্তানরা যেন ভুল পথে পা না বাড়ায়, সে জন্য সমাজের  প্রতিটি পেশার মানুষ ও মা-বাবাকে সন্তানের প্রতি যত্নবান হতে হবে। ’ শুধু উগ্রবাদ নয়, মাদকের পথে যেন সন্তানরা পা না দেয়, সে বিষয়েও সন্তানদের প্রতি অভিভাবকদের যত্নবান হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

তরুণ-তরুণীদের সঠিক শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়ে তোলার মাধ্যমে দেশ সেবায় অংশগ্রহণের প্রত্যাশা ব্যক্ত করে তিনি বলেন, ‘যাঁরা ফিরে এসেছেন, তাঁদের সুন্দর ভবিষ্যৎ আছে। তাঁরা সঠিক শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে সোনার বাংলা বিনির্মাণে ভূমিকা রাখবেন। ’

অনুষ্ঠানে দুই তরুণ-তরুণী তাঁদের ফিরে আসার গল্প জানান। তাঁরা বলেন, অচেনা ব্যক্তিদের ভুল ব্যাখ্যার ফাঁদে পড়ে ফেসবুকে একটি গ্রুপে যুক্ত হয়ে তাঁরা উগ্রবাদে উদ্বুদ্ধ হন। যাদের মাধ্যমে তাঁরা উদ্বুদ্ধ হয়েছেন, তাদের তাঁরা চিনতেন না। ফাঁদে পড়ে তাঁরা ঘর ছেড়েছিলেন।

তাঁরা জানান, ৯ জনই কথিত হিজরতের বিষয়ে একমত হয়ে গুগল ম্যাপ বিশ্লেষণ করে রাঙামাটি পাহাড়ি এলাকায় যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। তাঁরা ২২ ডিসেম্বর ঘর ছাড়ার পরদিন ২৩ ডিসেম্বর চট্টগ্রামের একটি জায়গায় একত্র হন। এরপর সেখান থেকে বাসে রাঙামাটি গিয়ে নিরিবিলি পরিবেশ না পেয়ে ফের চট্টগ্রামে ফিরে আসেন। এর মধ্যে একজন নারী সদস্য অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যান তাঁরা। সেখান থেকে ২৫ ডিসেম্বর র‌্যাব তাঁদের উদ্ধার করে ঢাকায় নিয়ে আসে।

তাঁরা নিজেদের ভুল বুঝতে পারার পর পরিবারের কাছে ফিরে যাওয়ার ইচ্ছা পোষণ করেন। এরপর র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখা, র‌্যাব-৭ ও র‌্যাব-৮-এর সহযোগিতায় ২৫ ডিসেম্বর তাঁদের র‌্যাবের হেফাজতে নেওয়া হয়। পরে বিভিন্ন প্রক্রিয়ায় সঠিক পথে ফিরিয়ে আনার উদ্দেশ্যে তাঁদের কাউন্সেলিং করা হয়। তরুণ-তরুণীরা পরিবারের কাছে ফিরে যাওয়ার ইচ্ছা পোষণ করলে র‌্যাব তাঁদের পরিবারের কাছে হস্তান্তরের আনুষ্ঠানিক প্রস্তুতি নেয়।

৯ তরুণ-তরুণীর মধ্যে একজনের বাবা ইউপি চেয়ারম্যান। ওই চেয়ারম্যান অনুষ্ঠানে বলেন, ‘আমার ছেলে মোবাইল ফোনে বিভিন্ন মেগাসিরিয়াল এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে ভুল পথে পা বাড়িয়েছে বলে মনে করি। ’ তাই সন্তানরা মোবাইল ফোনে কী করছে, ব্যস্ততার মধ্যেও তাদের খোঁজ রাখার পরামর্শ দেন তিনি।

র‌্যাবের গোয়েন্দাপ্রধান লে. কর্নেল মো. মশিউর রহমান জুয়েলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশন) কর্নেল মো. কামরুল হাসান ও অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) ডিআইজি ইমতিয়াজ আহমেদ। এ ছাড়া বিশেষ আলোচক ছিলেন মুফতি মানসুর আহমাদ।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (এডিজি-অপারেশনস) কামরুল হাসান বলেন, ‘এ নিয়ে আমরা বিভিন্ন সময়ে জঙ্গিবাদে জড়ানো ২৫ জনকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছি। তাঁদের সঙ্গে সব সময় যোগাযোগ রাখি, যাতে তাঁরা কোনোভাবে আগের যে ভ্রান্ত ধারণা ছিল, সেটিকে পুনরুজ্জীবিত করতে না পারেন। ’ তিনি আরো বলেন, র‌্যাব বিভিন্ন জঙ্গিগোষ্ঠী, তাদের নেতারা ও বিভিন্ন পর্যায়ের সদস্যদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসছে।

সর্বশেষ - রাজনীতি

আপনার জন্য নির্বাচিত