বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকলে লাইন কেটে দেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

adminadmin
  প্রকাশিত হয়েছেঃ   02 June 2022

আইনি নোটিশ দেওয়ার পরও গ্রাহক বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ না করলে লাইন (সংযোগ) কেটে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সরকারি ও বেসরকারি সব ধরনের লাইন কেটে দিতে বলেছেন তিনি।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কেন্দ্রে বুধবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে এ নির্দেশ দেন সরকারপ্রধান।বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দীর্ঘ দুই বছরের বেশি সময় পর আজ সশরীরে বৈঠকে অংশ নেন সরকারপ্রধান।

বৈঠকে ‘রাজশাহী এবং রংপুর বিভাগে নেসকো’র আওতাধীন এলাকায় স্মার্ট প্রি পেইড মিটার স্থাপন’ শীর্ষক প্রকল্প অনুমোদনকালে বিদ্যুৎ বিল বকেয়া নিয়ে আলোচনা উঠলে প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশনা দেন।

একনেক বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশনার কথা সাংবাদিকদের জানান পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘বৈঠকে রাজশাহী ও রংপুর বিভাগে নেসকোর আওতাধীন এলাকায় স্মার্ট প্রি পেইড মিটার স্থাপনের একটি প্রকল্প উঠেছিল। এ সময় প্রধানমন্ত্রী বিদ্যুতের আধুনিকায়ন বিষয়ে কথা বলেন। তখন কথা উঠছিল বিদ্যুতের বিল বাকি থাকা নিয়ে।মাননীয় প্রধানমন্ত্রী স্ট্রং নির্দেশনা দিয়েছেন যে আপনি আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেন। নোটিশ দেন, যদি পাওনা না দেয় কেটে দেন। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন- আর কত, হাজার হাজার কোটি টাকা পাওনা আছে।’

২০২১ সালের ৭ জানুয়ারি বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে বিদ্যুৎ বিভাগের দেওয়া হিসাব অনুযায়ী, দেশে গ্রাহকদের কাছে বিদ্যুৎ বিভাগের পাওনা রয়েছে ৮ হাজার ৫৫৬ কোটি ৬৩ লাখ টাকা। এরমধ্যে বেসরকারি খাতে ছয় হাজার ৯৬২ কোটি ৭৪ লাখ, আর সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কাছে বিদ্যুৎ বিভাগের ৭৪৬ কোটি ৮৬ লাখ টাকা পাওনা।

এমন পরিস্থিতিতে আজ একনেক বৈঠকে বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকলে সরকারি-বেসরকারি সব ধরনের সংযোগের ক্ষেত্রেই প্রধানমন্ত্রী লাইন কাটার নির্দেশনা দিয়েছেন বলে জানান মন্ত্রী মান্নান।

দেশের খবর

আপনার মতামত লিখুন :