উপনির্বাচন: রাজধানীতে বিএনপির মিছিল, ৫ বাসে আগুন

adminadmin
  প্রকাশিত হয়েছেঃ   12 November 2020

নিউজ ডেস্ক: ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনে ভোট চলাকালীন সময়ে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলীয় মিছিলের পর বিএনপির কর্মী-সমর্থকদের বিরুদ্ধে একটি বাসে আগুন দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। অন্যদিকে গুলিস্তান, শাহবাগ ও প্রেসক্লাবের সামনেও একই ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা থেকে সোয়া ২টার মধ্যে রাজধানীর এই চার এলাকায় এসব ঘটনা ঘটে।

নয়াপল্টন: দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ভোটে কারচুপির অভিযোগ তুলে যুবদল নেতা গোলাম মাওলা শাহিন ও খন্দকার এনামুল হকের নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয় নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে থেকে। মিছিলটি নাইটিঙ্গেল মোড় ও পুরানা পল্টন এলাকা প্রদক্ষিণ করে। এর পরপরই জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) একটি বাসে আগুন ধরিয়ে দেয় বিক্ষুব্ধ কর্মীরা।

এ ঘটনায় আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট। আগুণ তাৎক্ষনিকভাবে নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। এতে হতাহতের কোন ঘটনা ঘটেনি।

গুলিস্তান: দুপুর দেড়টার দিকে গুলিস্তানে গোলাপ শাহ মাজার এলাকায় ভিক্টর ক্লাসিক পরিবহনের বাসে আগুন ধরে। তবে কীভাবে আগুন লেগেছে, সে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ফায়ার সার্ভিস সদর দফতরের ফায়ার ফাইটার আনিসুর রহমান বলেন, আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত না আসা পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না।

প্রেসক্লাব: জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে দুপুর সোয়া ২টার দিকে দুর্বৃত্তের ছোড়া পেট্রোল বোমায় একটি বাসে আগুন লাগে। আগুন নিয়ন্ত্রণে এলেও হতাহতের তথ্য জানাতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস।

শাহবাগ: আজিজ সুপার মার্কেটের সামনে যাত্রীবাহী বাসে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে দুপুর পৌনে ২টার দিকে। এ তথ্য জানিয়ে ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার আনিসুর রহমান জানান, কেউ হতাহত হয়নি। ঘটনাস্থলে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে আওয়ামী লীগ প্রার্থী হাবিব হাসান বলেন, ‘আমার প্রতিপক্ষ বিএনপি প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর ককটেল ফাটিয়ে ভোটারদের ভয় দেখিয়ে কেন্দ্র থেকে দূরে রাখতে চায়। কারণ তিনি জানেন, জনগণ নৌকায় ভোট দেবে। নির্বাচনে কারচুপির মাধ্যমে জয় ছিনিয়ে আনতে তারা বাইরে থেকে লোক ভাড়া করে এনেছেন। রাজধানীতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে বিএনপির ভাড়াটিয়া কর্মীরা বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে অবস্থান করছে। যার বাস্তব প্রমাণ আজকের এই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা।’

আপনার মতামত লিখুন :