গুজব সেল এর মূল হোতা হলুদ সাংবাদিক কনক সরওয়ার

adminadmin
  প্রকাশিত হয়েছেঃ   07 January 2021

কনক সারওয়ার একজন চাকরিচ্যূত, দেশ বিতারিত সাংবাদিক।তিনি মূলত একজন সোশ্যাল মিডিয়া এক্টিভিস্ট।বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন, এই বিশ্ববিদ্যালয় থেকেই পিএইচডি করেছেন। তার কর্মকাণ্ডের দরূন দেশ থেকে পালিয়ে যাওয়ার পর তিনি দেশের বিভিন্ন সংবেদনশীল ইস্যু থেকে শুরু করে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে উস্কে দেয়া,সরকারবিরধী প্রোপাগান্ডা, বাংলাদেশের ইতিহাসকে বিকৃত করা সব ধরণের কাজ করে সমালোচিত হয়েছিলেন।

একুশে টেলিভিশনের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক হিসেবে কর্মরত থাকাকালীন ২০১৫ সালে তাকে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় ও দেশদ্রোহীর মামলায় গ্রেপ্তার করেন। ২০১৫ সালে ৯ মাস জেল খেটেছেন তিনি।এছাড়াও ইতিহাস বিকৃত করার অভিযোগে ইউটিউবসহ অন্যান্য ডিজিটাল মাধ্যম থেকে প্রবাসী সাংবাদিক ড. কনক সারওয়ারের কন্টেন্ট সরিয়ে নেয়ার আদেশ দিয়েছিল হাইকোর্ট। ১৭ই নভেম্বর ২০২০ হাইকোর্টে একটি পিটিশন দায়ের করেছিলেন আইনজীবী শাহ মঞ্জুরুল হক।

দেশের সার্বিক উন্নয়নযজ্ঞে কোণঠাসা হয়ে পড়া বিএনপি-জামায়াত জোট দেশে অস্থিরতা সৃষ্টির জন্য নতুন কৌশলের আশ্রয় নিয়েছে। দুর্নীতি, অর্থ পাচার, জঙ্গি সম্পৃক্ততা ও নৈতিক স্খলনের দায়ে দণ্ডিত, পলাতক এবং চাকরিচ্যুত কর্নেল শহীদ উদ্দিন খানকে দিয়ে সেনাবাহিনী ও পুলিশ সদস্যদের উস্কে দেওয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে এই দেশবিরোধী চক্র।সেই চক্রের সাথে হাত মিলিয়ে কনক সারওয়ার তার চরিত্রের প্রমান দিয়ে দেন। বিদেশে থেকে রাষ্ট্রবিরোধী কার্যকলাপ এবং সাংবাদিকতার ফোকাসে প্রতিনিয়ত প্রতিহিংসা এবং ষড়যন্ত্রমূলক বার্তা প্রদান করে থাকেন। যার প্রমাণ সাজাপ্রাপ্ত আসামি কর্নেল শহীদ ,মেজর দেলোয়ার ও অর্থলোভী, সমাজ ধিকৃত লেফটেনেন্ট জেনারেল হাসান সোরওয়ার্দীর মতো দেশবিরোধী মানুষএর সঙ্গে সুসম্পর্ক বহাল রেখে তাদের নিয়ে তার ইউটিউব চ্যানেলে লাইভে এসে তাদের মিথ্যাচারকে প্রতিস্টা করার চেষ্টা করা।

বিএনপি-জামায়াতের মুখপাত্রদের নিয়ে ইন্টারনেটে নিয়মিতই উস্কানিমূলক ও রাষ্ট্রবিরোধী প্রোপাগান্ডা ছড়িয়ে যাচ্ছেন তিনি। বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা, সরকার, প্রধানমন্ত্রী, বঙ্গবন্ধু এবং সেনাবাহিনীকে হেয় করে মনগড়া আলাপের সময় কখনো চিৎকার করে আপত্তিকর শব্দ ব্যবহার করে গালিগালাজ করতে আবার কখনো হিংস্রভাবে হাসতে দেখা যায় তাদের। মূলত বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার মুখপাত্র হিসেবে সক্রিয় চক্রের ্মাঝে কনক সারোয়ার ও একজন।বিএনপি নেতা হারুন ও বিএনপি নেত্রী পাপিয়ার সঙ্গে ঘনিষ্ট সম্পর্ক রয়েছে তার।

তার মূল উদ্দেশ্যই হল দেশ উন্নয়নে বাঁধা দেয়া,দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা।এবং সরকার বিরোধী মিথ্যাচার করে দেশের মানুষের মনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করা।সেনাবাহীনির দুজন অবাঞ্ছিত সদস্যকে নিয়ে প্রায়সই লাইভএ এসে তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে অর্থ উপার্জনের মাধ্যমকে আরো শক্ত করছে এবং দেশের জনগণকে মিথ্যাচার দিয়ে বিভ্রান্ত করছে।

জামাত বিএনপির মদদপুষ্ট এসব মানুষের বিচার হউয়া উচিত এবং দেশদ্রোহিতা ঠেকানোর জন্য গূরত্বপূর্ন ব্যবস্থা গ্রহন করা দরকার।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও ইউটিউব চ্যানেলে সরকারবিরোধী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত থাকা সাংবাদিক কনক সারওয়ার এর ব্যাংক হিসাব তলব করেছে বাংলাদেশ ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্ট ইউনিট (বিএফআইইউ)।

সম্পাদকীয়

আপনার মতামত লিখুন :