বাঘা যতীনের ভাস্কর্য ভাঙচুর, তিনজনের রিমান্ড মঞ্জুর

 admin
প্রকাশিত :  22-12-2020

নিউজ ডেস্ক
: কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে বিপ্লবী বাঘা যতীনের ভাস্কর্য ভাঙচুরের মামলায় তিনজনকে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। সোমবার দুপুরে কুষ্টিয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সেলিনা খাতুন তিন আসামির প্রত্যেকের তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

আসামিরা হলেন কুমারখালী উপজেলার কয়া ইউপির রায়ডাঙ্গার আনিচুর রহমান, মো. হৃদয় আহম্মেদ ও চাপড়া ইউনিয়নের ছেঁউড়িয়া মণ্ডলপাড়া এলাকার মো. সবুজ হোসেন।

কুমারখালী থানার ওসি মুজিবুর রহমান জানান, সকালে আসামিদের কারাগার থেকে আদালতে নেয়া হয়। রিমান্ড শুনানি শেষে আদালত প্রত্যেক আসামির তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ডের কপি পাওয়ার পর আসামিদের পুলিশ হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নেয়া হবে।

গত শনিবার মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও কুমারখালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রাকিবুল হাসান তিনজনের প্রত্যেককে সাত দিন করে রিমান্ডে নেয়ার আবেদন করেছিলেন।

গত বৃহস্পতিবার রাতে কুমারখালী উপজেলার কয়া গ্রামে বাঘা যতীনের ভাস্কর্যটি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গত শুক্রবার বিকেলে কয়া কলেজের অধ্যক্ষ হারুন অর রশীদ বাদী হয়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা করেন।

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ নিশ্চিত হয়েছে, আনিচুর রহমানের নেতৃত্বে কয়েকজন যুবক সরাসরি ভাস্কর্য ভাঙচুরে অংশ নেন। কয়া মহাবিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদ কমিটি নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে এ ঘটনা ঘটে।

গত ৪ ডিসেম্বর রাতে কুষ্টিয়া শহরের পাঁচ রাস্তার মোড়ে বঙ্গবন্ধুর নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভাঙচুর করা হয়। ওই ঘটনায় পুলিশ মাদরাসার দুই শিক্ষক ও দুই ছাত্রকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠায়।

দেশের খবর

আপনার মতামত লিখুন :

এই বিভাগের সর্বশেষ