ভাস্কর্য নয়, মাদ্রাসায় শিশু বলৎকার নিয়ে ভাবার পরামর্শ বাবুনগরীকে

adminadmin
  প্রকাশিত হয়েছেঃ   02 December 2020
বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য

নিউজ ডেস্ক: মাদ্রাসার হুজুরদের দ্বারা আমাদের সন্তানেরা বলাৎকারের শিকার হচ্ছে। কই তখন তো আপনারা প্রতিবাদ করতে আসেন না। নারায়ণগঞ্জের স্বেচ্ছাসেবক লীগের একটি সমাবেশ থেকে মৌলবাদী বাবুনগরীকে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে চিন্তা না করে মাদ্রাসায় ছেলে শিশুদের বলাৎকার নিয়ে ভাবার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

রোববার বন্দরনগরের প্রেসক্লাবের সামনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতার প্রতিবাদে এ সমাবেশ করা হয়। পরে বিক্ষোভ মিছিল করে বঙ্গবন্ধু সড়কের দুই নম্বর রেলগেট এলাকায় অবস্থান নেয় নেতা কর্মীরা।

ঢাকার ধোলাইপাড়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতা করে মাঠে নেমেছে ধর্মভিত্তিক কয়েকটি দল। ইসলামী আন্দোলন ‍হুমকি দিয়েছে এটি তারা বুড়িগঙ্গায় ফেলে দেবে।

আর গত শুক্রবার চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে এক মাহফিলে হেফাজতের আমির জুনাইদ বাবুনগরী বলেন, যে সরকারই যার ভাস্কর্যই নির্মাণ করুক না কেন, তারা টেনেহিঁচড়ে ফেলে দেবেন।

বাবুনগরীকে উদ্দেশ করে নারায়ণগঞ্জ মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি জুয়েল হোসেন বলেন, ‘কিছু কিছু স্থানে ইসলামের নাম বিক্রি করে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। মাদ্রাসায় আমাদের সন্তানদের বলাৎকার করা হয়। কই তখন তো আপনারা প্রতিবাদ করতে আসেন না।’

হুমকি দিয়ে কাজ হবে না জানিয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বলেন, ‘মৌলবাদী বাবুনগরী, আপনারা অতীতে অনেক হুঙ্কার দিয়েছেন। আপনাদের হুঙ্কার আওয়ামী লীগের সামনে টিকবে না। ইসলামের নামে ও ইসলামের রাজনীতি করার নামে জনগণের শান্তি ভঙ্গ করার চেষ্টা করবেন, তা মেনে নেয়া হবে না। ‘মনে রাখবেন, আমরা কিন্তু শামীম ওসমানের রাজনীতি করি। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে কটূক্তি করবেন; শামীম ওসমানের কর্মীরা কিন্তু বসে থাকবে না।’

সমাবেশে আরও বক্তব্যে রাখেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সিনিয়র সহ সভাপতি বাবু চন্দন শীল, রবিউল হোসেন, ছাত্রলীগের মহানগর শাখার সাবেক সভাপতি সাফায়েত আলম সানি।

সম্পাদকীয়

আপনার মতামত লিখুন :