logo
সোমবার , ২ জানুয়ারি ২০২৩ | ১৭ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ক্যারিয়ার ভাবনা
  5. খেলা
  6. জাতীয়
  7. টেক নিউজ
  8. দেশের খবর
  9. প্রবাস
  10. ফিচার
  11. বিনোদন
  12. রাজনীতি
  13. লাইফস্টাইল
  14. সম্পাদকীয়
  15. সাফল্য

‘অতি উৎসাহী’দের মোকাবেলা কূটনৈতিকভাবে

প্রতিবেদক
admin
জানুয়ারি ২, ২০২৩ ৯:১৫ পূর্বাহ্ণ

নির্বাচন নিয়ে অতি উৎসাহী বিদেশিদের কূটনৈতিকভাবে মোকাবেলা করছে সরকার। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম গতকাল রবিবার ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, “২০২২ সালের শেষ দিকে ‘ওভার এনথুজিয়াসটিক’ (অতিরিক্ত উৎসাহী) কিছু কাজ আমাদের নজরে এসেছে। এটি আমরা কূটনৈতিকভাবেই মোকাবেলা করছি। ”

প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ কারো পরামর্শের বিরোধিতা করে না।

তবে ওই পরামর্শগুলোর ব্যাপারে বাংলাদেশ থেকে যে ধরনের সাড়া দেওয়া হয়, তা অন্য কোথাও হয় কি না প্রশ্ন তোলেন তিনি। প্রতিমন্ত্রী বলেন, অন্য দেশে কী করা হয় বা এভাবে বিদেশিদের মন্তব্য করতে দেওয়া হয় কি না তা তারা ভালোভাবেই জানে। তিনি বলেন, গণতন্ত্র ইস্যুতে বাংলাদেশ সবার সঙ্গে সম্পৃক্ত। এ ক্ষেত্রে সরকারের যে অবস্থান তা তথ্যভিত্তিক। 

মানবাধিকার : মানবাধিকার ইস্যুতে বাংলাদেশ পশ্চিমা দেশগুলোর চাপে আছে কি না—এ প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ওই রাষ্ট্রগুলোর চেয়ে অনেক বেশি ভোট পেয়ে বাংলাদেশ মানবাধিকার পরিষদে নির্বাচিত হয়েছে। নির্যাতিত-নিপীড়িত দেশগুলোর পক্ষে কথা বলার জন্য। এটি দিয়ে প্রমাণ হয় আমরা মানবাধিকারের ক্ষেত্রে বিশ্বে কোথায় আছি। ’

চাপ প্রসঙ্গে প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আপনারা যেটিকে চাপ বলছেন, জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদের সবার ওপর সেই চাপ আছে। মজার বিষয় হলো, যারা এটি (মানবাধিকারের কথা) বলছে, তাদের চেয়ে অনেক বেশি ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে বাংলাদেশ। কারণ সেই রাষ্ট্রগুলো বাংলাদেশের সদিচ্ছা অনুধাবন করে। ’

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, অনেকে বাংলাদেশের সত্যিকারের চ্যালেঞ্জ ও অর্জনগুলো জানে না। গণমাধ্যমের দৃষ্টি দিয়ে বিভিন্ন কারণে বিভিন্নভাবে একেকজন একেকভাবে বিশ্লেষণ করে। শাহিরয়ার আলম জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদের নির্বাচনে সর্বোচ্চ ভোটে জয়ী হওয়াকে ২০২২ সালের বাংলাদেশের অন্যতম বড় অর্জন হিসেবে অভিহিত করেন।

রোহিঙ্গা ইস্যু : প্রতিমন্ত্রী বলেন, আশ্রিত রোহিঙ্গাদের জন্য ২০২২ সালে যে মানবিক সহায়তার অঙ্গীকার বিশ্ব করেছিল, তা বাস্তবায়নে বড় ফারাক রয়ে গেছে। কিন্তু তার পরও বাংলাদেশ তার অঙ্গীকার থেকে সরেনি। রোহিঙ্গাদের তাদের নিজ দেশ মিয়ানমারে এখনো ফেরাতে না পারাকে ব্যর্থতা হিসেবে স্বীকার করেন তিনি।

শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘অনেক দেশ ২০ বা ৩০ জন কিংবা ৬০ অভিবাসীকে আশ্রয় দিলে গণমাধ্যমে যে প্রচারণা পায়, ১০ লাখেরও বেশি লোককে আশ্রয় দিয়েও আমরা সেই বাহবা পাই না। ’

তিনি বলেন, এ বিষয়টিও খেয়াল রাখতে হবে। এখানে ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড’ নেই বা তারা (পশ্চিমারা) সবার সঙ্গে সমান আচরণ করছে না।

র‌্যাবের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার অগ্রাধিকার : র‌্যাব ও এর কয়েকজন কর্মকর্তার ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারকে অগ্রাধিকার দিচ্ছে সরকার। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, ‘র‌্যাব ও এর কর্মকর্তাদের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে আমরা কাজ করব। বিশেষ করে সংস্থা হিসেবে র‌্যাবের ওপর থেকে যেন তারা (যুক্তরাষ্ট্র) তুলে নেয়, এ বিষয়ে আমরা আমাদের উদ্যোগ ২০২৩ সালে আরো জোরালো করব। ’

‘প্রো-অ্যাকটিভ এনগেজমেন্ট’ : কোনো চাপে না থাকলে গত ১০ ডিসেম্বর বিএনপির কর্মসূচির পর সরকার কেন কূটনৈতিক মিশনগুলোতে ব্রিফিং পাঠাল, এ প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘প্রো-অ্যাকটিভ এনগেজমেন্টের’ (অতি সক্রিয় সম্পৃক্ততা) অংশ হিসেবে সরকার এটি করেছে। তিনি বলেন, ‘কূটনীতিকদের মধ্যে কেউ কোনো ধারণা তৈরির আগেই আমরা তথ্য পাঠিয়ে দিয়েছি। ’

সর্বশেষ - রাজনীতি

আপনার জন্য নির্বাচিত

তমব্রু সীমান্তে সংঘর্ষে ডিজিএফআই কর্মকর্তা নিহত: আইএসপিআর

সীমান্তে মিয়ানমারের হেলিকপ্টার থেকে একের পর এক গোলা নিক্ষেপ

শিক্ষার্থীদের ভর্তিতে ডোপ টেস্টের আইন হচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নেতৃত্বের সংকটে হতাশা বিরাজ করছে বিএনপির তৃণমূলে

ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট বাতিলের সুযোগ নাই: আইনমন্ত্রী

২০২৩ হোক দেশের অগ্রযাত্রার আরেকটি বছর: সজীব ওয়াজেদ জয়

আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতায় বিজয়ী আজ হাফেজ তাকরীমকে সংবর্ধনা দেবে ধর্ম মন্ত্রণালয়

দেশের সব নাগরিককে পেনশনের আওতায় আনতে বিল পাস

বিএনপি নাশকতা করলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিহত করবে আওয়ামী লীগ: তথ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশের সঙ্গে রুপিতেই বাণিজ্য করতে চায় ভারত