logo
Monday , 1 July 2024
  1. সকল নিউজ

আন্দোলনে সহিংসতা হলে খবর আছে, বিএনপির উদ্দেশে কাদের

প্রতিবেদক
admin
July 1, 2024 9:56 am

বিএনপিকে হুঁশিয়ারি দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পরিষ্কার বলে দিতে চাই, আন্দোলন করছেন, করেন। তবে আন্দোলনে সহিংসতার উপাদান যুক্ত হলে খবর আছে। গতকাল শনিবার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এক আলোচনাসভায় ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন। দলের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ এই আলোচনাসভার আয়োজন করে।

 

আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, দুর্নীতিবাজদের কারো ছাড় নেই, কারো ক্ষমতা নেই। এটা শেখের বেটি। শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে দেখিয়ে দেবেন দুর্নীতির বিরুদ্ধে তিনি কতটা কঠোর হতে পারেন।

দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগকে প্রস্তুত হতে হবে, তার আগে আমি বলব, বাড়াবাড়ি করবেন না।

সারা বাংলাদেশে সবার উদ্দেশে বলছি, বাড়াবাড়ি করবেন না। ক্ষমতার দাপট কেউ দেখাবেন না। কাউকে ক্ষমা করা হবে না। 

বিএনপির সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, দুর্নীতিবাজরাই এই দেশে বেশি দুর্নীতি দুর্নীতি করে, দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলে, তাদের মধ্যে কত যে দুর্নীতিবাজ একটু খুঁজে দেখেন, পেয়ে যাবেন।

 

দুর্নীতিবাজ আছে আশপাশে। দুর্নীতিবাজের ক্ষমা নেই। বিএনপির দুর্নীতির বিরুদ্ধে কোনো কথা বলার থাকে না। কারণ, বিএনপি মানেই দুর্নীতিবাজ। জাতীয়তাবাদী দুর্নীতিবাজ দল, আমরা শক্তি আমরা বল।

 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, তারেক রহমান দণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি। কিসের জন্য অভিযোগ? হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার, দুর্নীতির অভিযোগ। এখন বিএনপি নেতারা দুর্নীতি বিরুদ্ধে কথা বলেন। আপনাদের এক নম্বর নেতাই তো দুর্নীতিবাজ—হাজার হাজার টাকা পাচার করে আরাম-আয়েশে দিন কাটাচ্ছে। বাংলাদেশের বৈধ নির্বাচিত সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। ওই দুর্নীতিবাজকে বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনতে হবে, বিচার করতে হবে। সব তদন্ত হবে, কে কত টাকা বানিয়েছে।

দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে বিএনপি। তাদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, পরিষ্কার বলে দিতে চাই—আন্দোলন করছেন, করেন আন্দোলন। তবে আন্দোলনের সহিংসতার উপাদান যুক্ত হলে খবর আছে। আবারও খেলা হবে। খেলা হবে দুর্নীতির বিরুদ্ধে, খেলা হবে অর্থ পাচারের বিরুদ্ধে, লুটপাটের বিরুদ্ধে, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে, সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, লন্ডনে বসে কর্মসূচি দেয়, মেইড ইন লন্ডন। নতুন নেতৃত্ব পাঠায়, ফরমান আকারে। এই নেতৃত্বের নাম মেইড ইন লন্ডন। লন্ডনে বসে নেতা বানায়, কর্মসূচি দেয়। এই মেইড ইন লন্ডন কর্মসূচি মানে কী?

ওবায়দুল কাদের বলেন, খেলা কিন্তু হবে, ছেড়ে দেওয়া হবে না। বিএনপি বড় বড় কথা বলে। বিএনপি নেতাদের আন্দোলনে যত জোর নেই, মুখের বিষে যত জোর। তাঁদের মুখের বিষ উগ্র। কিন্তু তাঁদের আন্দোলন কী? তাঁদের আন্দোলন ভুয়া। এতে আওয়ামী লীগ সরকার এটুকুও বিচলিত নয়।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রথমবার ক্ষমতায় আসার পর বিএনপি নেতাদের অভিনন্দন জানানোর কথা স্মরণ করিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, দালালি করতে চেয়েছিলেন পারেননি, পাত্তা পাননি। যত দোষ নন্দঘোষ আওয়ামী লীগের। আমাদের সঙ্গে বন্ধুত্ব। আর আপনারা দাস হয়েও ভারতের সমর্থন চান। ক্ষমতার জন্য আপনাদের যে কারো দাসত্ব মেনে নিতে কোনো আপত্তি নেই। আমরা বন্ধু আছি বন্ধু থাকব। বিদেশে আমাদের সবাই বন্ধু। কেউ আমাদের প্রভু নেই। আপনাদের প্রভু আছে। প্রভুরা ক্ষমতায় বসাতে পারেনি।

বিএনপির কর্মসূচির দিন আওয়ামী লীগের কর্মসূচি পালন প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমরা বলেছিলাম বছরব্যাপী প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করব। সেখানে খবর হয় আমরা নাকি পাল্টাপাল্টি করছি। গতকাল আমরা সাইকেল শোভাযাত্রা করেছি, বিএনপির কি কিছু ছিল? তাহলে কেন এই অপবাদ আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে দিচ্ছেন? আমরা সারা বছর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করব। আমাদের কেন্দ্র থেকে ইউনিয়ন পর্যন্ত এই কর্মসূচি পালন করা হবে। আগস্ট মাসের পরে জেলা পর্যায়ে সমাবেশ হবে। সেই সমাবেশে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা বক্তব্য দেবেন।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, কয়েক দিন আগে নির্বাচন হয়েছে, উন্নয়নকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য দেশে এখন শান্তি দরকার। মানুষের জানমালের নিরাপত্তার জন্য নতুন সরকারের সময় দরকার। বিএনপিকে বলতে চাই, আবার ষড়যন্ত্র করে আজকে মিটিং দিয়েছে, খালেদা জিয়ার মুক্তি আমরা দেব না, এটা দেবে আইন, কোর্ট। কোর্ট যদি মুক্তি দেয়, আমাদের আপত্তি নেই। আন্দোলন করে, সন্ত্রাস করে, অগ্নিসন্ত্রাস করে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে পারবেন না।

আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফি। বক্তব্য  দেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডীর সদস্য আব্দুর রাজ্জাক, মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া ও কামরুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির প্রমুখ।

সর্বশেষ - সকল নিউজ

আপনার জন্য নির্বাচিত

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে জাতিসংঘের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান

মার্কিন শ্রমনীতির লক্ষ্যবস্তু বাংলাদেশ

আফগানিস্তানে ১ কোটি টাকা সহায়তা দিচ্ছে বাংলাদেশ

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ভুয়া তথ্য প্রচার করে যাচ্ছে তাসনিম

চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে বিমান ওঠানামা বন্ধ

‘কৃষি সেচে জ্বালানি তেল নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ নিশ্চিত করা হবে’

যুক্তরাষ্ট্রের নতুন নীতিতে বিপর্যয়ের মুখে বিএনপি

বাংলাদেশকে পাকিস্তানি রাষ্ট্র বানাতে চায় বিএনপি-জামায়াত : বাহাউদ্দিন নাছিম

‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন গণমাধ্যমের স্বাধীনতা খর্ব করতে করা হয়নি’

বিএনপি মানুষের দুঃখ-কষ্ট বাড়িয়ে অশুভ রাজনীতি করে: নাছিম