logo
মঙ্গলবার , ২৬ জুলাই ২০২২ | ৩১শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ক্যারিয়ার ভাবনা
  5. খেলা
  6. জাতীয়
  7. টেক নিউজ
  8. দেশের খবর
  9. প্রবাস
  10. ফিচার
  11. বিনোদন
  12. রাজনীতি
  13. লাইফস্টাইল
  14. সম্পাদকীয়
  15. সাফল্য

আগষ্টেই মালয়েশিয়ায় কর্মী যাওয়া শুরু হচ্ছে

প্রতিবেদক
admin
জুলাই ২৬, ২০২২ ৯:৩২ পূর্বাহ্ণ

স্বপ্নের দেশ মালয়েশিয়ায় কর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। রোববার প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় ৭টি রিক্রুটিং এজেন্সিকে মালয়েশিয়ায় প্রায় ১ হাজার কর্মী নিয়োগের অনুমতি দিয়েছে। আজ কালের মধ্যেই প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় থেকে প্রথম ধাপে ৬৮টি মেডিক্যাল সেন্টারকে কর্মীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার অনুমোতি পেতে যাচ্ছে। ফলে আগামী আগষ্ট মাসেই মালয়েশিয়ায় কর্মী যাওয়া শুরু হচ্ছে। প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এবং একাধিক রিক্রুটিং এজেন্সির স্বত্বাধিকারী এ আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। প্রবাসী মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানায়, উভয় দেশের সম্মতিক্রমে জনশক্তি রফতানি শুরু হলে এবার মালয়েশিয়ায় প্রায় ৫ লাখ বাংলাদেশি কর্মী যেতে পারবে।

মালয়েশিয়া গমনেচ্ছু কর্মীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় থেকে সংশ্লিষ্ট মেডিক্যাল সেন্টারের তালিকা প্রকাশ না হওয়ায় কর্মীরা চরম উৎকন্ঠায় দিন কাটাচ্ছেন। স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে হাজার হাজার কর্মী।

প্রবাসী কর্মীর অভাবে মালয়েশিয়ার বিভিন্ন খাতে উৎপাদন প্রক্রিয়ায় অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। দেশটিতে প্রচুর বাংলাদেশি কর্মীর চাহিরা রয়েছে। বর্তমানের দেশটিতে ছয় লক্ষাধিক বাংলাদেশি কর্মী কঠোর পরিশ্রম করে প্রচুর রেমিট্যান্স দেশে পাঠাচ্ছেন। বাংলাদেশি অনেকে রিক্রুটিং এজেন্সির স্বত্বাধিকারী কর্মী নিয়োগের চাহিদাপত্র সংগ্রহের জন্য বর্তমানে মালয়েশিয়ায় অবস্থান করে সংশ্লিষ্ট কোম্পানীর ফ্যাক্টরীগুলো পরিদর্শন করে যাচাই বাছাই কার্যক্রম শুরু করেছে। বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়া বিলম্ব হওয়ায় গত দেড় মাস যাবত নেপাল থেকে প্রচুর কর্মী মালয়েশিয়ায় যাচ্ছে।

আজ সোমবার রাতে কুয়ালালামপুর থেকে এ জ্ডে গ্লোবাল এসডিএন বিএইচডি’র ডিরেক্টর ও আওয়ামী লীগ মালয়েশিয়া শাখার সহ সভাপতি দাতো মো. আক্তার হোসেন ইনকিলাবকে জানান, মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রফতানি সংক্রান্ত চুক্তি অনুযায়ী এবার বাংলাদেশি কর্মীদের বেতন নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫শ’ রিংগিট এবং দেশটির শ্রম আইন অনুযায়ী অন্যান্য সুযোগ সুবিধা ভোগ করবে তারা। তিনি বলেন, দেশটির ইমিগ্রেশন থেকে দেড় লাভ অ্যাপ্রুভাল বের হয়েছে। কিন্ত এর অধিকাংশই নেপাল থেকে কর্মী আসতে শুরু করছে। বাংলাদেশ থেকে কর্মী প্রেরণে মাসের পর মাস বিলম্ব হওয়ায় দেশটির বিভিন্ন কোম্পানী পাকিস্তান, নেপাল ও ভারতের দিকে ঝুঁকছে। এক প্রশ্নের জবাবে প্রবাসী ব্যবসায়ী দাতো আক্তার হোসেন বলেন, মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার দ্রুত ধরে রাখতে না পারলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে বাংলাদেশি কর্মীরা। তিনি বলেন, কর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়া বিলম্ব হওয়ায় আমার কোম্পানীর ৪শ’ কর্মীর চাহিদা বর্তমানের নেপাল থেকে পূরণ করতে বাধ্য হলাম।

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আহমদ মনিরুছ সালেহীন আজ সোমবার তার দপ্তরে মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রফতানি প্রক্রিয়া শুরু প্রসঙ্গে ইনকিলাবকে বলেন, রোববার ৭টি রিক্রুটিং এজেন্সিকে দেশটিতে প্রায় ১ হাজার কর্মী নিয়োগের অনুমতি দেয়া হয়েছে। মালয়েশিয়ার অভিবাসী কর্মী নিয়োগের অনলাইন সিস্টেম এফডব্লিউসিএমএসকে এসব নিয়োগানুমতি বিষয়টি জানিয়ে দেয়া হবে। শিগগিরই দেশটিতে কর্মী যাওয়া শুরু হবে বলেও প্রবাসী সচিব আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সচিব বলেন, মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রফতানিতে কর্মী প্রতি অভিবাসন ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ৭৮ হাজার ৯৯০ টাকা। সরকার নির্ধারিত ব্যয়ের মাধ্যমেই কর্মী পাঠাতে হবে। চুক্তি অনুযায়ী মালয়েশিয়ার কোম্পানীগুলো বাংলাদেশি কর্মীদের আসা যাওয়ার বিমান টিকিট প্রদান করবে। তিনি বলেন, মালয়েশিয়ায় প্রচুর বাংলাদেশি কর্মীর চাহিদা রয়েছে।

সচিব বলেন, কর্মীদের স্বার্থ রক্ষা করেই দেশটিতে জনশক্তি রফতানি করতে হবে। সরকার নির্ধারিত অভিবাসন ব্যয়ের অতিরিক্ত কোনো এজেন্সি টাকা নিলে অভিযুক্ত এজেন্সির বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ব্যাপারে কঠোর নজরদারি করা হবে বলেও প্রবাসী সচিব উল্লেখ করেন। প্রবাসী মন্ত্রণালয় থেকে যে ৭টি রিক্রুটিং এজেন্সি মালয়েশিয়ায় কর্মী নিয়োগের অনুমতি লাভ করেছে তা’হচ্ছে, মেসার্স নিউ এজ ইন্টারন্যাশনাল (১৫০ জন), অরবিটাল (৭০জন), মেসার্স আমিয়াল ইন্টারন্যাশনাল (১৫০), গ্রীনল্যান্ড ওভারসীজ (১০০ জন), পাত ফাইন্ডার (৭০ জন), আহমেদ ইন্টারন্যাশনাল, সাউথ পয়েন্ট।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ কূটনৈতিক প্রচেষ্টায় ২০২১ সালের ১৯ ডিসেম্বর দেশটির কুয়ালালামপুরে উভয় দেশের মধ্যে জনশক্তি রফতানি সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। ওই চুক্তি অনুযায়ী দেশটির নিয়োগকারী কোম্পানীগুলো কর্মীর লেভির অর্থ এবং কর্মীর আসা যাওয়ার বিমানের টিকিট দেয়ার কথা রয়েছে। মালয়েমিয়ায় কর্মী প্রেরণের সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের পর হাজার হাজার মালয়েশিয়া গমনেচ্ছু কর্মী বিভিন্ন রিক্রুটিং এজেন্সিতে প্রতিনিয়ত ধরণা দিচ্ছেন।

গত ২ জুন ঢাকায় দুই দেশের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের মধ্যে অনুষ্ঠিত জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠকে মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানোর বিষয়টি চূড়ান্ত হওয়ার পর এ ব্যাপারে প্রক্রিয়া শুরু হয়। ১২ জুন থেকে মালয়েশিয়া যেতে ইচ্ছুক কর্মীদের নিবন্ধন প্রক্রিয়া শুরু করে জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো (বিএমইটি)। জেলা কর্মসংস্থান অনলাইনে আমি প্রবাসী অ্যাপের মাধ্যমে এই নিবন্ধন শুরু করা হয়। মালয়েশিয়া গমনেচ্ছু কর্মীদের বিএমইটি ডাটাবেজে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার অনুরোধ জানানো হয় বিজ্ঞপ্তিতে। ১৮ থেকে ৪৫ বছর বয়সীরা নিবন্ধনের উপযোগী বলে বিবেচিত হবে। নিবন্ধনের কার্যকারিতা থাকবে দুই বছর পর্যন্ত। যারা আগে থেকে নিবন্ধন করেছেন তাদের নতুন করে নিবন্ধন করতে হবে না।

বেসরকারি রিক্রুটিং এজেন্সি হাজরে আসওয়াতের ওভারসীজ ও আল আরাফা এভিয়েশনের এক্সিকিউটিভ মো. দেলোয়ার হোসাইন আজ সোমবার ইনকিলাবকে বলেন, মালয়েশিয়ার সুপ্রিম উড এন্টারপ্রাইজ গত ২১ ফেব্রুয়ারি এবং স্কাই উড এসডিএন বিএইচডি’ গত ২৪ এপ্রিল তাদের এজেন্সির মাধ্যমে ১৫ জন সাধারণ কর্মী নিয়োগের চাহিদাপত্র ইস্যু করেছে। গত শুক্রবার আল আরাফা এভিয়েশনের অনুকূলে ৫৫ জন এবং হাজরে আসওয়াদ ট্রাভেল এন্ড ট্যুরসের অনুকূলে ১২০ জন কর্মী নিয়োগের চাহিদাপত্রে সত্যায়নের জন্য কুয়ালালামপুরস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনে ফাইল জমা দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, মালয়েশিয়ার নিয়োগকর্তারা বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিতে অধির আগ্রহে অপেক্ষা করছে। দেশটিতে অভিবাসী কর্মীর চরম সঙ্কট বিরাজ করছে। আজ সোমবার রাতে মেসার্স নিউ এজ ইন্টারন্যাশনালের স্বত্বাধিকারী মো.সওকত হোসেন সিকদার ইনকিলাবকে জানান, মালয়েশিয়ায় ২ হাজার কর্মী নিয়োগের চাহিদা পেয়েছি। রোববার প্রবাসী মন্ত্রণালয় নিউ এ্জ ইন্টারন্যাশনালকে মালয়েশিয়ায় ১৫০ জন কর্মী নিয়োগের অনুমতি দিয়েছে। তিনি বলেন, কর্মীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য যত তাড়াতাড়ি মেডিক্যাল সেন্টারের তালিকা অনুমোদন দেয়া হবে তত তাড়াতাড়ি দেশটিতে কর্মী প্রেরণ করা সম্ভব হবে। তিনি বলেন, মালয়েশিয়া গমনেচ্ছু হাজার হাজার কর্মী স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য অধির আগ্রহে অপেক্ষা করছে। এক প্রশ্নের জবাবে জনশক্তি রফতানিকারক সওকত হোসেন সিকদার বলেন, মেডিক্যাল সেন্টার নির্বাচন সম্পন্ন না হওয়ায় মালয়েশিয়ায় কর্মী প্রেরণ কার্যক্রম ঝুলে রয়েছে।

সর্বশেষ - দেশের খবর

আপনার জন্য নির্বাচিত

সংকট মোকাবেলায় ১ বিলিয়ন ডলার সংগ্রহে নেমেছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী

সর্বকালের সর্বনিম্ন মান কমলো ভারতীয় রুপির

ভণ্ড জাফরুল্লাহর ফাঁদে ভিপি নুরও!

নাম বদলে মুসলিম বিধান মতে আসমাকে বিয়ে করেন সৌমেন রায়

প্রেমিকের সঙ্গে ফোনে কথা বলতে বলতেই কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা

‘টিকা নেওয়া ছাড়া কেউ বাইরে বের হতে পারবে না’- তথ্যটি সঠিক নয়

পদ্মা সেতুতে বিশ্বব্যাংকের অর্থ বরাদ্দ বন্ধের ষড়যন্ত্রকারীদের বিচার দাবি সংসদে

দেশে এনে বঙ্গবন্ধুর ৪ খুনির দণ্ড কার্যকর শিগগিরই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

দেশে কমিটি বাণিজ্য ও দুর্নীতির টাকায় লন্ডন ক্যাসিনোতে ফূর্তি করছে তারেক

কুমিল্লায় ফেসবুক পোস্টকে কেন্দ্র করে ভাঙচুর অগ্নিসংযোগ