আল-জাজিরার মকুমেন্টারির কারণে অনশনে যাচ্ছে ছাত্রদল!

xanoxxanox
  প্রকাশিত হয়েছেঃ   15 February 2021

ডকুমেন্টারি হলো তথ্যচিত্র, আর ‘মকুমেন্টারি’ হলো এমন একটি চলচ্চিত্র, যা তথ্যচিত্রের স্টাইলে নির্মিত। কিন্তু কাল্পনিক বিষয়ভিত্তিক। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ট্রল করার জন্য বা মজা করার ছলে বিষয়টিকে সিরিয়াস ভঙ্গিতে উপস্থাপন করা হয়। অনেক ক্লাসিক বা সফল চলচ্চিত্রের প্যারোডি হিসেবে নির্মাণ করা হয়েছে অনুরূপ ছবি, শুধুমাত্র ট্রল বা মজার করার উদ্দেশ্যে।

আল-জাজিরার এই মকুমেন্টারিকে ক্যাশ করে কোনো আন্দোলন করতে না পারায় ইতিমধ্যে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটি বাতিল করেছেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। এমন ঘটনায় হতবাক সংগঠনটির নেতাকর্মীরা।

রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ছাত্রদল কমিটির মেয়াদোত্তীর্ণ যাওয়ায় এই কমিটি ভে’ঙে দেয়া হয়েছে। তবে হঠাৎ এই সিদ্ধান্তের কারণ ও নতুন কমিটির বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো রূপরেখা বিবৃতিতে জানানো হয়নি। এ বিষয়ে তারেক রহমানও কারো সঙ্গে যোগাযোগ করছেন না বলে একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র নিশ্চিত করেছে।

তবে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক সদস্য বলেন, কেন কমিটি ভে’ঙে দেয়া হয়েছে এ বিষয়ে বিবৃতি দিলে সরকারপক্ষ নি’ন্দা করার সুযোগ পেয়ে যেতো। তাই আমরা কোনো কিছু বলিনি। আসলে মূল কারণ হচ্ছে আল-জাজিরার সংবাদ ইস্যুতে এতো তোলপাড় হলো অথচ বিএনপি কোনো আন্দোলন করতে পারলো না।

এর আগে একাধিক ইস্যু গেলেও ছাত্রদলের পক্ষ থেকে কিছু করা হলো না। বিষয়গুলো বার বার তারেক রহমানকে হতাশ করেছে। আর এ কারণে তিনি দায়িত্ব নিতে অক্ষম বর্তমান কমিটি ভেঙে দিয়েছেন।

অপরদিকে জানা যায়, কমিটিবিহীন ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা গণ-অনশনের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

এরইমধ্যে ছাত্রদলের সদ্য বিলু’প্ত কমিটির নেতৃবৃন্দ প্রতিবাদ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বলেও জানা গেছে। কমিটি পুনর্গঠনের জন্য সময় বেঁধে দিয়েছেন তারা। বলা হয়েছে, ১৬ ফেব্রুয়ারির মধ্যে কমিটি পুনর্গঠিত না হলে ১৮ ফেব্রুয়ারি থেকে গণ-অনশনে যাবে ছাত্রদল কর্মীরা।

তবে ছাত্রদলের এমন কর্মসূচির ঘোষণায় তারেক রহমানকে দোষারোপ করছে বিএনপির নেতারা। অনেকেই বলছেন, ছাত্রদের ওপর এতো কঠিন আচরণ করা ঠিক হয়নি। এমনিতেই নেতাকর্মীরা হতাশ দিন যাপন করছেন। এরমধ্যে এভাবে কমিটি ভেঙে দেয়া হলে ছাত্ররা রাজনীতিবিমুখ হয়ে পড়বে।

আল-জাজিরা ইস্যুতে দলের কোনো পর্যায়েরই নেতাকর্মীরা আন্দোলন গড়ে তুলতে পারেনি। এতে হাইকমান্ডও দায় এড়াতে পারে না। অদক্ষ নেতৃত্বকে দায়ি করছেন অনেকেই। তাই বিএনপির থিংকট্যাংক বুদ্ধিজীবীরা পরামর্শ দিচ্ছেন দল গুছিয়ে যোগ্য নেতৃত্বের সন্ধান করতে। ছাত্রদলের ওপর দোষ চাপাতে গিয়ে হিতে বিপরীতই হবে। ভবিষ্যতে মাঠে থাকবে না কেউই।

জাতীয়

আপনার মতামত লিখুন :