logo
রবিবার , ১৫ জানুয়ারি ২০২৩ | ১৭ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ক্যারিয়ার ভাবনা
  5. খেলা
  6. জাতীয়
  7. টেক নিউজ
  8. দেশের খবর
  9. প্রবাস
  10. ফিচার
  11. বিনোদন
  12. রাজনীতি
  13. লাইফস্টাইল
  14. সম্পাদকীয়
  15. সাফল্য

বাসভাড়া বাড়ানোর দাবি তুলতে পারেন মালিকরা

প্রতিবেদক
admin
জানুয়ারি ১৫, ২০২৩ ৯:৩৪ পূর্বাহ্ণ

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) কাছে বাসভাড়া বাড়ানোসহ বেশ কিছু সুপারিশ তুলে ধরবে পরিবহন মালিক সমিতি। সড়ক পরিবহন বিধিমালা জারি হওয়ার পর যানবাহনসংশ্লিষ্ট খরচ নতুন করে বেড়েছে। এ জন্য বাসের ভাড়া বাড়াতে চান মালিকরা। পণ্য পরিবহনসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা চান বিভিন্ন পরিষেবার বর্ধিত ফি প্রত্যাহার।

রাজধানীর বনানীতে বিআরটিএ প্রধান কার্যালয়ে আজ রবিবার ‘ডিজিটাল সেবা প্রদান সংক্রান্ত মতবিনিময় এবং সড়ক পরিবহন বিধিমালা, ২০২২ অবহিতকরণ’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর বাসের ভাড়া বৃদ্ধিসহ বেশ কিছু সুপারিশ বিআরটিএর কাছে তুলে ধরবেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির নেতারা।

জানতে চাইলে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি মসিউর রহমান রাঙ্গা গতকাল কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘রবিবারের (আজ) মিটিংয়ে আমি যাব না। আমাদের মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ যাবেন। যা বলার মিটিংয়ে উনি বলবেন।’ এ বিষয়ে জানতে সংগঠনটির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহকে ফোন করা হলে তিনি ফোন ধরেননি।

বাসভাড়া বাড়ানোর কথা বলা অযৌক্তিক হবে বলে মনে করছেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এ বি এম আমিন উল্লাহ। তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘গণপরিবহনে বছরে যা খরচ বেড়েছে সেটাকে দিনে হিসাব করে দেখেন। প্রতিদিন খুবই অল্প খরচ বেড়েছে। এর জন্য ভাড়া বাড়ানোর দাবি ওঠার কথা না। ভাড়া বাড়ানোর আলোচনা যুক্তিসংগত নয়। আমার বিশ্বাস ভাড়া বাড়ানোর আলোচনা উঠবে না।’

গত ২৮ ডিসেম্বর সড়ক পরিবহন বিধিমালা, ২০২২ কার্যকর করা হয়েছে। ড্রাইভিং লাইসেন্স, যানবাহনের নিবন্ধন, ফিটনেস সনদসহ ৭৫টি পরিষেবার ফি নতুন হারে আদায় শুরু করেছে বিআরটিএ। সড়ক পরিবহন বিধিমালা বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, নতুন করে সর্বোচ্চ ২৩৩ শতাংশ পর্যন্ত ফি বেড়েছে।

দেশের সবচেয়ে বড় পণ্য পরিবহনের সংগঠন বাংলাদেশ ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হোসেন আহাম্মেদ মজুমদার কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বাস মালিকরা চাইলে বিআরটিএর সঙ্গে কথা বলে ভাড়া বাড়িয়ে নিতে পারবেন। আমাদের সে সুযোগ নেই। আমাদের দাবি গাড়ির গুরুত্বপূর্ণ চার কাগজ—ফিটনেস, রুটপারমিট, ট্যাক্স টোকেন এবং ব্লু বুকের বর্ধিত ফি প্রত্যাহার করতে হবে।’

বেশির ভাগ খরচ বেড়েছে মোটরসাইকেল ও ব্যক্তিগত গাড়িতে, গণপরিবহনে নয় উল্লেখ করে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বাসের কোনো ট্যাক্স বাড়েনি। বাসভাড়া বাড়ানোর কোনো যৌক্তিকতা নেই। বাস মালিকরা এখন একটা অসিলা ধরে ভাড়া বাড়াতে চান। সরকারের পক্ষ থেকে এটাকে আশকারা দেওয়া উচিত হবে না।’

সর্বশেষ - রাজনীতি